এবারের মতো অশনি থেকে রক্ষা তিন রাজ্যের উপকূল। দাবি আবহাওয়া দপ্তরের।

Share this page

সমুদ্রেই বিলীন হয়ে যাচ্ছে অশনি৷ শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলেও স্থলভাগে আছড়ে পড়ছে না সে৷ ফলে পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা বা অন্ধ্র- ঘূর্ণিঝড়ের রোষ থেকে এবারের মতো রক্ষা পাচ্ছে তিন রাজ্যের উপকূলই৷ তবে অশনির প্রভাবে আগামী ৪৮ ঘণ্টা উপকূলবর্তী চার জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর৷

অশনি যে শেষ পর্যন্ত বঙ্গোপসাগরের উপরেই শক্তিক্ষয় করবে, সেই সম্ভাবনার কথা আগেই জানিয়েছিল হাওয়া অফিস৷ আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাঞ্চলীয় অধিকর্তা সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এ দিন জানিয়েছেন, আগামিকালই শক্তিশালী থেকে সাধারণ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে অশনি৷ বৃহস্পতিবার আরও শক্তি ক্ষয় করে সেটি নিম্নচাপে পরিণত হবে৷

তবে অশনি আছড়ে পড়ার আশঙ্কা না থাকলেও এখন উত্তাল থাকবে সমুদ্র৷ তাই মৎস্যজীবীদের জন্য জারি করা সতর্কতা বজায় থাকছে৷ পর্যটকদেরও আগামী দু’ দিন সমুদ্রে নামতে নিষেধ করেছে আবহাওয়া দফতর৷

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, অশনি শক্তিক্ষয় করলেও আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, দুই চব্বিশ পরগণা এবং নদিয়া জেলায় ভারী বৃষ্টিপাত হবে৷ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বাকি জেলাগুলিতেও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হাল্কা বৃষ্টি চলবে৷

বৃহস্পতিবারের পর থেকে শনিবার পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের উপরের দিকের পাঁচটি জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে৷ এর মধ্যে কোচবিহার ও জলপাইগুড়িতে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর৷ ১২ তারিখের পর থেকে দক্ষিণ পশ্চিম বাতাস ফের সক্রিয় হবে৷ এর ফলে উত্তরবঙ্গ এবং উত্তর পূর্বের রাজ্যগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকবে৷ তবে বৃহস্পতিবারের পর থেকে ধীরে ধীরে শুষ্ক হবে দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়া৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

bn Bengali
X