একজন ২০ বছরের বিধায়ক , পেশায় হাই স্কুলের শিক্ষক। বাবা প্রাক্তন সাংসদ , পুরুলিয়ার রূপকার দেবেন মাহাতো

Share this page

পাঠকের কলম :-  একজন ২০ বছরের বিধায়ক (MLA). পেশায়

High school এর শিক্ষক।,বাবা প্রাক্তন সাংসদ,পুরুলিয়ার রূপকার দেবেন মাহাতো। যখন প্রথমবার নেপাল বাবু ভোটে জেতেন তখন সিপিআইএম মধ্য গগনে। ২০০১ এ তৎকালীন বামফ্রন্ট সরকারের পূর্নমন্ত্রী সত্য মাহাত কে হারিয়ে জয়ী হন তিনি।

না সেবারেও জোট ছিলো। কংগ্রেস – তৃণমূল! ঝালদা সিট টা (বর্তমান বাঘমুণ্ডি) তৃণমূল কে ছেড়েছিল প্রদেশ কংগ্রেস। নেপাল বাবু দাড়ালেন “পুরুলিয়া কংগ্রেস” নামক দল খুলে। প্রতীক “বাস” ছাপ। সেই থেকে স্রোতের বিপরীতে হাটা শুরু….বাম জামানার ১০ বছর,তৃণমূল জামানার ১০ বছর তিনি বিধায়ক। ২০ বছর MLA থাকার পরেও মানুষটা আজও মাটির।

অহংকার করার মত অনেক কিছুই আছে,যেমন ২০ বছরে এক আনা টাকার অভিযোগ কেউ করতে পারবেন না। কাউকে অসম্মান করেছেন,কেউ মনে মনে ভাবতে পারবেন না। নিজের দল বাদ দিলাম,বিরোধীরাও নেপাল বাবু ছাড়া বলেন না। তবুও মানুষটার কোনো অহংকার নেই। এখনো গ্রামের অনুষ্ঠানে মাটিতে পাতা বিছানায় শুয়ে রাত্রি যাপন করেন।

(তথ্য ও ছবি:- Subha Raut)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

bn Bengali
X